নেতাকর্মীদের দেখা দিচ্ছেন না খালেদা জিয়া

Print Friendly
নেতাকর্মীদের দেখা দিচ্ছেন না খালেদা জিয়া

ঢাকা :

সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এখনই দেশে ফিরছেন না। পরিবারের সঙ্গে নিরবিচ্ছিন্ন সময় কাটাচ্ছেন তিনি। দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গেও দেখা দিচ্ছেন না। আগামী কয়েক দিনও তিনি নেতাকর্মীদের থেকে আলাদা থাকবেন। ঈদের পর তার দেশে ফেরার কথা ছিল। কিন্তু এখন পর্যন্ত তার আসার সময় সূচি চূড়ান্ত হয়নি বলে জানা গেছে।

যদিও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর মঙ্গলবার সংবাদ মাধ্যমকে বলেছিলেন, তারা আশা করছেন আগামী সপ্তাহে বেগম জিয়া চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরবেন। লন্ডন বিএনপি ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, বেগম জিয়ার পায়ের সমস্যা তাকে আগের চেয়ে বেশি ভুগাচ্ছে। এর মধ্যে একাধিকবার ডাক্তার দেখিয়েছেন তিনি। আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর তিনি আবারো ডাক্তারের কাছে যাবেন।

এছাড়া ডাক্তার যেসব পরীক্ষা-নিরীক্ষা দিয়েছেন তার কিছু ফলাফলও পাওয়া যাবে ২০ সেপ্টেম্বরের পরে। তাই বেগম জিয়া চিকিৎসার এই পর্ব শেষ না করে দেশে ফিরতে চাচ্ছেন না। সে ক্ষেত্রে চলতি মাসের শেষ সপ্তাহের আগে খালেদা জিয়ার দেশে ফেরার সম্ভাবনা নাই। তবে মাসের শেষে ফেরার বিষয়ে তিনি এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেননি বলে জানা গেছে।

লন্ডনের সূত্র জানায়, ঈদের আগে থেকেই খালেদা জিয়া দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে দেখা করা নিয়ন্ত্রিত করেছেন। এমনকি দেশ থেকে লন্ডনে যাওয়া দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বা ভাইস চেয়ারম্যান আউয়াল মিন্টু বা সাংগঠনিক সম্পাদক শ্যামা ওবায়েদসহ বেশ কয়েকজন তার সাথে দেখা করতে চাইলেও দেখা দেননি খালেদা জিয়া।

লন্ডনে এই মুহুর্তে তারেক রহমানের পরিবার ছাড়াও খালেদা জিয়ার প্রয়াত ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শামিলা রহমান সিঁথি ও তার দুই কন্যা রয়েছেন। এছাড়া তিনি তার নাতনীদের সাথেও সময় কাটাচ্ছেন। তার চিকিৎসার সমস্ত দেখাশোনা করছেন বড় ছেলে তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জুবাইদা রহমান। ছোট ছেলে কোকো মারা যাওয়ার পর এই প্রথম পারিবারের ঘনিষ্ট সদস্যদের সাথে সময় কাটানোর সুযোগ পেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন। পরিবারের সদস্যদের পেয়ে তাই অনেকটা আবেগতাড়িতও তিনি।

এছাড়াও শারীরিক অসুস্থতায়ও কিছুটা সময় জরুরী না হলে নেতাকর্মীদের দেখা দেয়া বা রাজনৈতিক সামাজিক অনুষ্ঠানে থেকে নিজেকে দূরে রাখতে চান বিএনপি প্রধান।

লন্ডন থেকে ফিরে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেছেন, তারা আশা করছেন বেগম জিয়ার ডাক্তার দেখানো এই মাসের মাঝামাঝিই শেষ হয়ে যাবে। এর পরপরই তিনি দেশের উদ্দেশ্যে রওনা দিবেন।