সাব্বিরের ব্যাটিং দেখে কোহলিকে মনে পড়েছে

Print Friendly

1

১১৭ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে যখন বাংলাদেশ ধুকছে তখন ব্যাট করতে নামেন সাব্বির রহমান। এমন পরিস্থিতি ব্যাটিংয়ে নেমে তাকে একটুও নার্ভাস মনে হয়নি। উল্টো নিজের স্বভাবজাত ব্যাটিংয়ে ছড়ি ঘোরাতে থাকেন অস্ট্রেলিয়া বোলারদের ওপর। এক পর্যায়ে মুশফিককে সঙ্গে বিপর্যয় কাটিয়ে ওঠেন তিনি। বিষয়টি মুগ্ধ করেছে সফরকারী দলের বিশেষজ্ঞ স্পিনার নাথান লায়নকে। এতোটাই মুগ্ধ করেছে যে, সাব্বিরের ব্যাটিং দেখে তিনি বিরাট কোহলিকে স্মরণ করেছেন।চট্টগ্রাম টেস্টে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে লায়নের তোপে পড়ে বাংলাদেশ। তার বলে এলবিডব্লুর ফাঁদে পড়ে ফিরে যান তামিম, সৌম্য, মুমিনুল ও সাকিব। প্রায়ই একইরকম কায়দায় ৪ ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে টাইগার টপঅর্ডারে ধস নামান তিনি। এতে বাংলাদেশ ২০০’র কৌটা পার হতে পারবে কি না তা নিয়ে শঙ্কা জাগে। তবে সাব্বিরের সাবলীল ব্যাটিংয়ে তা নস্যাৎ হয়ে যায়। মুশফিকের সঙ্গে ষষ্ঠ উইকেটে ১০৫ রানের জুটি গড়ে দলকে ভালো অবস্থানে তুলে আনেন বাংলাদেশ হার্ডহিটার। অবশ্য শেষ পর্যন্ত লায়নের বলেই স্টাম্পিং হয়ে ফিরেছেন সাব্বির। ফেরার আগে খেলেছেন ক্যারিয়ার সেরা ৬৬ রানের ইনিংস।

১১৩ বলে ৬ চার ও ১ ছক্কায় তার ইনিংসটি হয়তো কোনো মহাকাব্য লেখেনি, তবে সেটিই ভীষণ মুগ্ধ করেছে অজি স্পিনারকে। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, সাব্বিরের ইনিংসটি খুব লম্বা নয়। তবে তার ইতিবাচক ব্যাটিং দেখে আমার চোখে বিরাট কোহলির ছবি ভেসে উঠেছে। সে আমাকে কোহলিকে মনে করিয়ে দিয়েছে।দলের চরম বিপর্যয়েও ধীরে চলো নীতি গ্রহণ করেননি সাব্বির। শট খেলেছেন ওয়ানডে স্টাইলে। এরও ভূয়সী প্রশংসা করেছেন অস্ট্রেলিয়া স্পিন আক্রমণের কর্ণধার। তিনি বলেন, দেখলাম সে (সাব্বির) রক্ষণাত্মক ক্রিকেট খেলে না। সাহসী ক্রিকেট খেলে। ও অসাধারণ খেলেছে, দারুণ কিছু শট খেলেছে।বাংলাদেশ হার্ডহিটারের আউটটিকেও দুর্ভাগ্য হিসেবে দেখছেন লায়ন। সঙ্গে ভালো কিছু করতে ক্রিকেটদেবীর সহায়তার কথাও উল্লেখ করেছেন তিনি। অজি স্পিন আক্রমণের নেতা বলেন, ক্রিকেটে ভাগ্যের ছোঁয়া লাগে। যে বলে সে (সাব্বির) স্ট্যাম্পিং হয়েছে, সেটি আমার সেরা বল ছিল না। এটা ব্যাড লাক।