বাংলা সিনেমা করতে চেয়েছিলেন রাম রহিম

Print Friendly

2

হিন্দি সিনেমায় পরিচিত মুখ ধর্ষণের দায়ে সাজাপ্রাপ্ত ধর্মগুরু গুরমিত রাম রহিম সিংয়ের বাংলা সিনেমাও তৈরি করার কথা ছিল বলে জানিয়েছে ভারতের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে।নায়ক হিসেবে এবং প্রযোজক হিসেবে বেশ কয়েকটি সিনেমা করেছেন তিনি। নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর ভূমিকায় বাংলা সিনেমায় অভিনয় করার কথা ছিল এ ধর্ষক ধর্মগুরুর।

ইন্ডিয়া টুডে’র প্রতিবেদনে জানানো হয়, সিনেমার কাজটি এ বছরেই শুরু হবার কথা ছিল। নেতাজিকে নিয়ে এ ছবিটির নায়ক, প্রযোজক, পরিচালক হিসাবে রাম রহিমেরই থাকার কথা ছিল।তিনি অনেক দিন ধরেই নেতাজির চরিত্রে অভিনয়ের জন্য উদগ্রীব ছিলেন বলেও জানানো হয় ওই প্রতিবেদনে। সিনেমাটির জন্য এ বছরের নভেম্বরেই কলকাতায় প্রাথমিক কাজ শুরু করার কথা ছিল তার।এদিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় এ খবরটি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা শুরু হয়েছে। অনেকেই বলছেন, নিজেকে দেশপ্রেমিক হিসেবে তুলে ধরার জন্যই নেতাজির চরিত্রে অভিনয় করছিলেন কথিত এ ধর্মগুরু।অন্যদিকে তার সমর্থকরা বলছেন, লড়াই ও আত্মত্যাগকে ফুটিয়ে তোলার গল্প তুলে ধরতেই তিনি সিনেমাটি করার চিন্তা করেছিলেন।এদিকে পশ্চিমবঙ্গের গণমাধ্যমগুলোর মতে, সিনেমাটির জন্য বাঙালি একজন অভিনেত্রীর সঙ্গে চুক্তির জন্য কথা হয়েছিল রহিমের প্রযোজনা সংস্থা হকিকত এন্টারটেনমেন্টের। যদিও ওই অভিনেত্রীর নাম জানা সম্ভব হয়নি।মূলত অভিনেতা হিসেবে বলিউডে জায়গা করে নিতে সমস্যা হচ্ছিল দেখে বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি দিয়ে অভিনয় জগতে প্রতিষ্ঠিত হবার কথা ভাবছিলেন রাম রহিম। তাই নেতাজির মতো চরিত্রকে বেছে বাংলা ছবি করার পরিকল্পনা করেন রাম রহিম। বলে দাবি করেছে পশ্চিমবঙ্গের কয়েকটি গণমাধ্যম। ১৫ বছর আগে দুই নারী ভক্তকে ধর্ষণের দায়ে গেলো মাসের ২৫ তারিখ দোষী সাব্যস্ত হন ধর্মগুরু রাম রহিম। রায় শুনে হরিয়ানায় সহিংসতায় ৩২ জন নিহত এবং অনেকেই আহত হন। তিনদিন পর ২৮ তারিখ রাম রহিমকে ১০ বছর করে মোট ২০ বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত।